ইউকে শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪
হেডলাইন

যে কারণে ‘পর্ন পাসপোর্ট’ চালু করল স্পেন!

ইউকে বাংলা অনলাইন ডেস্ক :পর্ন পাসপোর্ট’ চালু করল ইউরোপের দেশ স্পেন। মূলত শিশুদের পর্ন দেখা থেকে বিরত রাখতে এই উদ্যোগ নিয়েছে দেশটি।

‘পর্ন পাসপোর্ট’ নাম হলেও আসলে এটি কোনও পাসপোর্ট না। এটি একটি অ্যাপ, যার আনুষ্ঠানিক নাম ‘বিটা ডিজিটাল ওয়ালেট (কারটেরা ডিজিটাল বিটা)’।

ইউরোপীয় সংবাদমাধ্যম দ্য লোকালের মতে, এখন থেকে স্পেনের যে নাগরিকেরা অনলাইনে পর্ন ছবি দেখতে চাইবেন, তাদের প্রাপ্তবয়স্কদের ওয়েবসাইটের জন্য মাসিক পাস রাখতে হবে। সরকারি পরিচয়পত্র ব্যবহার করে সেই পাস পাওয়া যাবে।
প্রথমে ব্যবহারকারীদের তাদের মোবাইলে বিটা ডিজিটাল ওয়ালেট অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। অ্যাপের কাজ হবে সরকারি পরিচয়পত্র যাচাই করা।

ব্যবহারকারীকে ইলেকট্রনিক ডিএনআই বা ডিজিটাল সার্টিফিকেট ব্যবহার করে নিজেদের শনাক্ত করাতে হবে। বয়স ১৮ বছরের বেশি হলে তবেই তাকে মান্যতা দেবে এই অ্যাপ। মিলবে পর্ন পাসপোর্ট।

সংবাদমাধ্যম ‘আইনিউজ’ অনুযায়ী, একজন ব্যক্তি নিজের পরিচয় যাচাইয়ের জন্য পরিচয়পত্র হিসেবে স্বাস্থ্য বা আবাসিক কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স বা পাসপোর্ট ব্যবহার করতে পারেন।

পরিচয় যাচাইয়ের পরে ব্যবহারকারীদের অ্যাপে ৩০টি ক্রেডিট পয়েন্ট দেওয়া হবে, যা পাসের মতো কাজ করবে।

ক্রেডিট পয়েন্ট ব্যবহার করে প্রাপ্তবয়স্কেরা এক মাস দিনে একটি করে নীল ছবি দেখতে পারবেন। যাদের আরও পর্ন দেখার ইচ্ছা হবে, তারা অতিরিক্ত ক্রেডিট পয়েন্টের অনুরোধ করতে পারেন অ্যাপের মাধ্যমেই।

মোবাইল অ্যাপটি ফোনের ই-ওয়ালেটের মতো কাজ করবে। যেকোনও পর্ন ওয়েবসাইট খুললেই একটি কিউআর কোড দেখতে পাবেন গ্রাহকেরা।

‘পর্ন পাসপোর্ট’ অ্যাপের মাধ্যমে সেই কিউআর কোড স্ক্যান করে ভিডিও দেখা যাবে। তবে সঙ্গে একটি ক্রেডিট পয়েন্ট খরচ হয়ে যাবে। প্রত্যেক মাসে সেই পাস পুনর্নবায়ন করতে হবে।

জানা গেছে, শুধুমাত্র স্পেনীয় পর্ন ওয়েবসাইটগুলোতেই এই কিউআর কোড এবং ‘পর্ন পাসপোর্ট’ অ্যাপের মাধ্যমে যাচাইয়ের প্রক্রিয়া থাকবে।

তবে স্পেনের ‘ন্যাশনাল সাইবার সিকিউরিটি ইনস্টিটিউট’-এর পক্ষ থেকে স্পেনীয় নয়- এমন পর্ন ওয়েবসাইটগুলোর দিকেও নজর রাখা হবে।

বেশ কয়েকটি সমীক্ষা এবং প্রতিবেদন অনুযায়ী, আট-ন’বছর বয়সেই স্পেনের অনেক শিশু জীবনে প্রথমবার পর্ন দেখে ফেলে।

স্পেনের অর্ধেকেরও বেশি শিশুর পর্ন ছবির দুনিয়ার সঙ্গে পরিচয় ঘটে ১১ থেকে ১৩ বছর বয়সের মধ্যেই। অনেকে আসক্তও হয়ে পড়ে।

সমীক্ষায় এ-ও উঠে এসেছে, অপ্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে পর্ন দেখে বিভিন্ন অপরাধের প্রবণতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত পাঁচ বছরে শিশুদের দ্বারা সংঘটিত যৌন নিপীড়নের ঘটনা ১১৬ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

আর সেই কারণেই অপ্রাপ্ত বয়স্কদের মধ্যে পর্ন দেখার অভ্যাস কমাতে এবং যারা পর্ন দেখতে চাইছে, তাদের বয়স যাচাই করতে এই পন্থা বেছে নিয়েছে স্পেনের সরকার।

যদিও বিশেষজ্ঞদের মতে, অ্যাপটিতে এখনও কিছু মৌলিক ত্রুটি রয়েছে। যার ফলে নিজেদের উদ্দেশ্যে সরকার কতটা সফল হবে, তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন :

সর্বশেষ সংবাদ

ukbanglaonline.com