ইউকে সোমবার, ২ আগস্ট ২০২১
হেডলাইন

যে কারণে অলিম্পিক চার বছর পর পর আয়োজন হয়

যে কারণে অলিম্পিক চার বছর পর পর আয়োজন হয়
 

ইউকে বাংলা অনলাইন ডেস্ক :  সবশেষ অলিম্পিক আসর বলেছিল ব্রাজিলের রিও ডি জেনেরিও শহরে ২০১৬ সালে। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২০২০ সালে নতুন আসর জাপানের টোকিওতে আয়োজনের কথা ছিল। যদিও করোনাভাইরাস মহামারীতে সব পরিকল্পনা ভেস্তে যায়। এক বছর পিছিয়ে আগামী ২৩ জুলাই পর্দা উঠছে গ্রেটেস্ট শো অন আর্থের। চলবে ৮ জুলাই পর্যন্ত। নিয়ম অনুযায়ী চার বছর পর পর অলিম্পিক আয়োজনের কথা। এবার আয়োজন হচ্ছে পাঁচ বছর পর। কেনো চার বছর পর আয়োজন হয়ে থাকে ক্রীড়া বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই আসর। জেনে নিবো এই প্রতিবেদনে।

প্রায় তিন হাজার বছরের ইতিহাস রয়েছে অলিম্পিকের। খ্রিষ্ট পূর্ব ৭৭৬ অব্দে শুরু হয়েছিল এর যাত্রা। যদিও আনুষ্ঠানিকভাবে ১৮৯৬ সাল থেকে হয়ে আসছে গেমস। খ্রিষ্ট জন্মের ৩৯৩ অব্দ পর্যন্ত গ্রিসের পেলোপনেস উপদ্বীপে চার বছর পর পর বসত এই ক্রীড়া আয়োজন।

অলিম্পিক পুনরুদ্ধারের জন্য এক ফ্রেঞ্চ শিক্ষাবিদ ও ইতিহাসবিদের অবদান রয়েছে। তার নাম চার্লস পিয়ের দে ফ্রেদি। ১৮৯৪ সালে কাজ শুরু করেছিলেন তিনি। দুই বছর পর গ্রিসের এথেন্স শহরে নতুন রূপ পেয়েছিল অলিম্পিক। চার বছরের ব্যবধানকে ‘অলিম্পিয়াড’ হিসেবে আখ্যা দেয়া হয়। এর মাধ্যমে সময় নির্ধারণের পাশাপাশি একে শুভ হিসেবেও কল্পনা করা হয়। তাই গ্রিসের পেলোপনেসের অলিম্পিয়াডে চার বছর পর পর আসর বসানো হতো। নতুন রূপে সেই ধারাই অব্যাহত রাখা হয়। একই কারণে ফুটবল, ক্রিকেট, হকি, রাগবির মতো জনপ্রিয় খেলা গুলোর বিশ্বকাপও চার বছর পর আয়োজন করা হয়।

১৮৯৬ থেকে ১৯৩৬ সাল টানা ৪০ বছর চার বছর পর পর বসেছিল অলিম্পিক। মাঝখানে ১২ বছর বন্ধ ছিল আয়োজন। চীন-জাপান যুদ্ধ এবং দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে ১৯৪০ ও ১৯৪৪ সালের আসর আয়োজন করা সম্ভব হয়নি। ১৯৪৮ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত নিয়ম মেনে চার বছর পরই চলেছে অলিম্পিক।

২০২০ সালের ২৪ জুলাই উদ্বোধন হবার কথা ছিল টোকিও অলিম্পিক। করোনা মহামারীতে এক বছর স্থগিত করা হয়। এবারই প্রথম পাঁচ বছর পর বসতে চলেছে বিশ্বের সর্ব বৃহৎ এই ক্রীড়াযজ্ঞ।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন :

সর্বশেষ সংবাদ

ukbanglaonline.com