ইউকে সোমবার, ২ আগস্ট ২০২১
হেডলাইন

সহকর্মী হত্যা, সিলেটের আইনজীবীদের চার দাবি

সহকর্মী হত্যা, সিলেটের আইনজীবীদের চার দাবি

সিলেট সংবাদদাতা :  সিলেটে আইনজীবী আনোয়ার হোসেন হত্যার ঘটনায় চার দফা দাবিতে মানববন্ধন করেছেন সহকর্মী আইনজীবীরা। তাদের দাবিগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে মামলার তদন্ত কাজ দ্রুত শেষ করা, অপরটি ন্যায় বিচার নিশ্চিত করা এবং মামলার প্রধান আসামি শাহজাহান চৌধুরী মাহিকে দ্রুত গ্রেপ্তার ও মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর।

এসব দাবিতে বৃহস্পতিবার বেলা ২ টার দিকে সিলেট জেলা ও দায়রা জজ আদালতের আইনজীবী সমিতির সকল আইনজীবীরা মানববন্ধন করেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ‘আনোয়ার হোসেন একজন বিজ্ঞ আইনজীবী। তিনি রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ কাজে অবদান রাখার যোগ্যতা রাখেন।তাকে হত্যা করা হলেও এখনো প্রধান আসামি মাহি পলাতক। আমরা তার দ্রুত গ্রেপ্তার দেখতে চাই। তাছাড়া মামলাটির বিচারিক প্রক্রিয়া দ্রুত করতে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর করা প্রয়োজন।’

সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট এটিএম ফয়েজ উদ্দিন বলেন, ‘আমরা জানি এ মামলায় গ্রেপ্তার শিপা বেগম ইতোমধ্যে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিয়েছেন। সে ক্ষেত্রে আর বিলম্ব বা কালক্ষেপণ না করে যত দ্রুত সম্ভব তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়া উচিৎ।’

জেলা আইনজীবী সমিতির আয়োজনে এ মানববন্ধনে উপস্থিত হয়ে বক্তব্য রাখেন আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মাহফুজুর রহমান, যুগ্ম সম্পাদক শিব্বির আহমদ বাবলু, সমিতির সাবেক সভাপতি শফিউল আলম, সাবেক সভাপতি এমাদ উল্লাহ শহীদুল ইসলাম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক হোসেন আহমদ এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক সরোয়ার আহমদ চৌধুরী আবদাল প্রমুখ। এসময় সিলেট জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর এডভোকেট নিজাম উদ্দিন।

এছাড়াও এ মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বাদী পক্ষের সহযোগী আইনজীবী অ্যাডভোকেট কানন আলম, এডভোকেট আবু ফাহাদ, এডভোকেট এনামুল হক ছাড়াও সকল আইনজীবীগণ।

এর আগে ৩০ এপ্রিল মারা যান এডভোকেট আনোয়ার হোসেন। তিনি সিলেট নগরীর তালতলা এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন। মৃত্যুর পর আনোয়ার হোসেনের দাফন করা হয়। কিন্তু ঘটনার মাত্র ১০ দিনের মাতায় নিহতের স্ত্রী শিপা বেগম তার খালাতো ভাই শাহজাহান চৌধুরী মাহিকে বিয়ে করেন। এ থেকে সন্দেহ হয় আনোয়ার হোসেনের পরিবারের। পরে ১ জুন আদালতে মামলার আবেদন করেন আনোয়ার হোসেনের ভাই মনোয়ার হোসেন। এ আবেদনের শুনানি শেষে আদালত কোতোয়ালি থানার ওসিকে ৩০২ ধারায় মামলা গ্রহণের নির্দেশ দেন। পরদিন ২ জুন রাতে অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন হত্যা মামলায় তার স্ত্রী শিপা বেগমকে সিলেট নগরীর তালতলা এলাকার একটি বাসা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ৩ জুন দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

এ মামলায় গ্রেপ্তার শিপা বেগম ইতোমধ্যে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি এসএম আবু ফরহাদ। এমনকি বুধবার (১৬ জুন) আইনজীবী আনোয়ার হোসেনের লাশ কবর থেকে তুলে ময়না তদন্ত করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

ওসি বলেন, শিপা বেগম আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। মামলার প্রধান আসামি মাহির সহযোগিতায় তিনি আনোয়ার হোসেনকে ঘুমের ওষুধ খাইয়েছিলেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন :

সর্বশেষ সংবাদ

ukbanglaonline.com