ইউকে মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১
হেডলাইন

ভোটের সময় পুলিশ বিজেপি হয়ে যায়: মমতা

 

ইউকে বাংলা অনলাইন ডেস্ক :  ভোটের সময় পুলিশ বিজেপি হয়ে যায় বলে প্রকাশ্য সভায় অভিযোগ করলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার কথায়, আমি অনেক জায়গায় দেখেছি, ভোটের সময় পুলিশ বিজেপি হয়ে যায়! তবে ছোট পুলিশদের কোনো দোষ নেই। পুলিশের নেতারা সব আন্ডারস্ট্যান্ডিং করে বসে আছে।

বুধবার (৭ এপ্রিল) উত্তরবঙ্গের কোচবিহারের জনসভা থেকে ভোট নিয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশের পাশাপাশিই কেন্দ্রীয় বাহিনী তথা সিআরপিএফের বিরুদ্ধেও উষ্মা প্রকাশ করেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।

একদিকে যেমন তিনি পুলিশ সম্পর্কে বলেছেন, ভোটের সময় পুলিশ বিজেপি হয়ে যায়। তাই ওদের বিশ্বাস করবেন না। তেমনই সিআরপিএফ-কে ঘেরাও করারও নিদান দিয়েছেন। তার অভিযোগ, রাজ্যে কিছু ‘বিজেপি-সিআরপিএফ’ এসেছে।

বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি, কেন্দ্রীয় বাহিনী জনগণকে ভোট দিতে বাধা দিতে পারে না। জনগণকে ভোটদানে সহযোগিতা করা উচিত তাদের।

মমতা বলেন, সিআরপিএফ-কে আমি সম্মান করি। ওরা আসল জওয়ান। কিন্তু যারা বিজেপি-র সিআরপিএফ, আমি তাদের সম্মান করি না। তারাই মহিলাদের হেনস্থা করছে। মানুষ মারছে। তারাই গন্ডগোল পাকাচ্ছে।

সিআরপিএফ যেন নির্বাচনের পরের দফাগুলিতে কোনো গণ্ডগোল করতে না পারে, মানুষকে হেনস্থা করতে পারে, তা দেখার জন্য নির্বাচন কমিশনের কাছে আবেদন জানাবেন বলেও মন্তব্য করেন মমতা। তার কথায়, অমিত শাহের নির্দেশেই সিআরপিএফ এ সব কাজ করছে। আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে পুলিশকে কখনো এ রকম নির্দেশ দিইনি।

পুলিশ প্রসঙ্গেই দলের এজেন্টদের উদ্দেশে বার্তা দিয়েছেন তৃণমূলের সর্বময় নেত্রী। কর্মীদের সতর্ক করে বলেছেন, পুলিশ তাদের চলে যেতে বললেও তারা যেন না চলে যান। পুলিশদের কথায় যেন বিশ্বাস না করেন।

আরামবাগের তৃণমূল প্রার্থী সুজাতা মণ্ডলের উপর হামলার প্রসঙ্গ টেনে এনে মমতা বলেন, আরামবাগের ওসি-র দৌড়ও দেখে নিয়েছি। সুতরাং আমরাও কিন্তু লক্ষ্য রাখব কে কী করছেন।

তবে পাশাপাশিই মমতা জানিয়েছেন, তৃণমূল শান্তিপূর্ণ ভোটই চায়। জানিয়েছেন, পুলিশের নিরপেক্ষ ভাবে কাজ করা উচিত।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন :

সর্বশেষ সংবাদ

ukbanglaonline.com